How to Rank my website #1 in Google | Technical SEO On-page SEO In Bengali

    ধরুন আপনি একটি ওয়েবসাইট তৈরি করেছেন এবং সেখানে কমবেশি আপনার দেশ থেকে 200 টি আর্টিকেল লেখা আছে। কিন্তু আপনার এই আর্টিকেল গুলিতে তেমন বেশি ভিজিটর আসে না এর জন্য প্রয়োজন এমন ভাবে সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন করা যাতে খুব সহজেই আপনি গুগলের ফাস্ট পেজে Rank করতে পারেন।How to rank my website number one in Google in Bengali.


    গুগলের ফাস্ট পেজে ব্যাংক কতটা যত সহজ কাজটি তার থেকে বেশি কঠিন কারণ আপনি যে বিষয় নিয়ে লিখতে চলেছেন আশা করি সেই বিষয়ে অনেক লেখা গুগলের কাছে আছে।How to rank my website number one in Google in Bengali.
How to rank my website in Bengali.

    আরে তারা সকলে আপনার প্রতিযোগী বা কম্পিটিটর এই কারণে যদি তাদেরকে হারাতে না পারেন তবে আপনি কোনদিনও গুগলের ফার্স্ট যে আসতে পারবেন না।আর এই তাদেরকে হারানোর জন্য প্রয়োজন আপনার কিছু কৌশল।

    এই সকল কৌশল গুলিকে আমরা প্রযুক্তিগতভাবে বা টেকনোলজি দিক থেকে বলব সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন।একমাত্র এই সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন এর মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই একটি পেজকে গুগলের ফাস্ট পেজে লিংক করাতে পারেন। How to rank my website in Bengali.

    যদিও এই এসইও সম্পর্কে আমি আগে বিস্তারিত আলোচনা করেছি তবুও বলি যে এসইও বিষয়টি একটি কোনো বিষয় নয় এসইও এর সঙ্গে কমবেশি দু'শটি জড়িয়ে আছে অর্থাৎ এই দুটি বিষয়কে যথাযথভাবে করতে পারলে তবেই আপনি গুগলের সার্চ ইঞ্জিনে অবস্থান করতে পারবেন।

   কিন্তু আমাদের দাঁড়ায় ওই 200 টি কাজ একটি আর্টিকেল এর জন্য করা কখনোই সম্ভব না এজন্য আমরা আগে থেকেই আমাদের ওয়েবসাইটটি কে এমন ভাবে তৈরি করব যাতে ওই 200 টি কাজের মধ্যে অধিকাংশ কাজ গুলি তৈরি হয়ে থাকে। How to rank my website in Bengali.

    তারপর থেকে যখন প্রত্যেকটি আর্টিকেল লিখব বা পাবলিস্ট করবো তখন আর কিছু কাজ এই আর্টিকেলের উপর করলেই তা অটোমেটিক্যালি আমাদের আগের সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন এবং এই আর্টিকেলটি সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন একত্রিত হয়ে একটি পরিপূর্ণ অপটিমাইজেশন হবে যার ফলে আমরা গুগোল এ অবস্থান করতে পারব।

    যে কোন ওয়েবসাইটকে গুগল এ বা যেকোন সার্চ ইঞ্জিনে অবস্থান করাতে গেলে তার মধ্যে কিছু অপ্টিমাইজেশন প্রক্রিয়া থাকে যেমন টেকনিক্যাল এসইও অন পেজ এসইও অফ পেজ এসইও ইত্যাদি।

   আজ আমি এই আর্টিকেল এর মাধ্যমে সবথেকে সংক্ষিপ্তভাবে কি করে একটি আর্টিকেল কে গুগলের ফাস্ট পেজে ঝংকার অনুযায়ী তা দেখাব। এর মধ্যে থাকবে টেকনিক্যাল এসইও অন পেজ এসইও ইত্যাদি। How to rank my website in Bengali.


     যেকোনো ওয়েবসাইটের এসইও সাধারণত 3 টি পার্ট হয়ে থাকে - নাম্বার ওয়ান টেকনিক্যাল এসইও, নাম্বার 2 অন পেজ এসইও, এবং নাম্বার 3 অফ পেজ এসইও। আর এই তিন প্রকার এসইও যখন ঠিকঠাকভাবে করা হয় তখন আপনার ওয়েবসাইটটি অবস্থান করে গুগল সার্চ ইঞ্জিনের ফাস্ট পেজে



টেকনিক্যাল এসইও / technical SEO


    নাম্বার ওয়ান ইউজ রিপোর্টিং, টুল রিপোর্টিং প্ল্যাটফর্মের সাথে আপনার ওয়েবসাইটকে অবশ্যই কানেক্ট করবেন অনেকগুলি ফ্রী টুল আছে যেমন গুগল সার্চ কনসোল, গুগল এনালাইটিক, গুগল ট্যাগ ম্যানেজার, ইত্যাদি।

   এদের  ব্যবহারের ফলে আপনার ওয়েবসাইটে যে ভিজিটর আসবে শুধুমাত্র তাদের ইনফর্মেশন এরা দিয়েই এরা সীমাবদ্ধ থাকেনা এমনকি আপনি ট্রাক করে জানতে পারবেন আপনার ওয়েবসাইটে কি কি সুইটেবল চেঞ্জ বা পরিবর্তন করতে হবে এবং আপনার সার্ভিস প্রোডাকশন কি করতে হবে।

   সুতরাং এই সকল ফ্রী টুল গুলির সঙ্গে আপনার ওয়েবসাইটটিকে যুক্ত করুন এবং ভেরিফাই করবেন গুগল ডাটা স্টুডিও ফ্রিতে এই সকল সার্ভিস দিয়ে থাকে। How to rank my website in Bengali.

নম্বর দুই সাইট ম্যাপ, সাইটম্যাপ হলো এক্সএমএল ফর্মাটএ দেওয়া ওই সকল ডাটার সমন্বয় যা আপনার ওয়েবসাইটের স্ট্রাকচার সম্পর্কে সার্চ ইঞ্জিনের কাছে খুব ভালোভাবে উপস্থাপন করে থাকে সাইটম্যাপ সর্বদা এক্সএমএল ফর্মাটার হয়।

     তবে রিসেন্টলি আমি একটি ওয়েবসাইটে দেখেছি যেখানে এইচটিএমএল দিয়ে সাইট ম্যাপ টি তৈরি করা, আমি একটু বিস্তারিতভাবে  জেনে ও বুঝে  দেখলাম যে এই ওয়েবসাইটটি আসলে অনেক শক্তিশালী ভাবে তৈরি করা এই কারণে তারা তাদের এক্সএমএল সাইটম্যাপ এইচটিএমএল দিয়ে তৈরি করেছে।

  সুতরাং আপনিও আপনার ওয়েবসাইটের জন্য একটি সাইটম্যাপ ক্রিয়েট করুন তাকে সাবমিট করুন এবং তাকে ব্যবহার করুন। How to rank my website in Bengali.

    নাম্বার থ্রি, রি ডাইরেক্ট আপনার বিজনেস এর জন্য যদি একের অধিক ডোমেইন কিনে থাকেন তবে অবশ্যই অ্যাডিশনাল ডোমাইন এর সাথে পার্মানেন্টলি ডোমেইন রিডাইরেক্ট করুন, যাকে আমরা বলি 301 রিডাইরেক্ট আপনার ওয়েবসাইটের কনটেন্ট কখনো কপি করে রাখবেন না এবং 302 রিডাইরেক্ট করবেন না এটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

    ডুবলিকেট কনটেন্ট আপনার মেইন ওয়েবসাইটের অথরিটি এবং রাঙ্ক দুটি কেই বিপদে ফেলতে পারে। অনেকেই স্পিন কনটেন্ট দিয়ে থাকে এবং তারা চিন্তা করে যে এর ফলে হয়তো তাদের ওয়েব সাইটের ব্যাকলিংক বাড়বে কিন্তু এটা হয় না আমাকে বিশ্বাস করতে পারেন আর এটি সঠিক পথ নয় আর এটা করলে আপনার ওয়েবসাইটের একটি বড় রকমের ক্ষতিও হতে পারে।



     নাম্বার ফোর, ইজি / সহজ ওয়েবসাইট, চিন্তা করুন আপনি কোন সরকারি ওয়েবসাইটে কাজ করছেন তখন ভিজিটরদের কথা অবশ্যই আপনার মাথায় রাখতে হবে এবং সাইটের গঠন বা স্ট্রাকচার খুবই সিম্পিল হতে হবে এবং কখনোই অন্য কোন কমার্শিয়াল ওয়েবসাইটের সঙ্গে মিলে হবে না। সুতরাং একে একদম সাবলীল এবং সিম্পিল করে গড়ে তুলুন।

   নাম্বার ফাইভ, এইচটিটিপিএস / HTTPS ওয়েবসাইট অবশ্যই এইচটিটিপিএস যুক্ত হতে হবে আপনার ওয়েবসাইট যদি এইচটিটিপি / HTTP হয়ে থাকে তবে অবশ্যই আপনি একে আগে এইচটিটিপিএস অর্থাৎ এসএসএল (SSL) সার্টিফিকেট দিয়ে লক করুন আর যদি আপনার ওয়েবসাইট এসএসএল সার্টিফিকেট না থাকে তবে কখনোই ভালো প্রায়োরিটি দেবে না।

   নাম্বার সিক্স, আপনার ওয়েবসাইটটিকে রেস্পন্সিভ করে তুলুন কারণ ৬০ থেকে ৮০% ট্রাফিক আসে মোবাইল থেকে সুতরাং আপনার ওয়েবসাইটটি যদি মোবাইলে ভালোভাবে না ওপেন হতে পারে তবে দর্শকরা বা ভিজিটর কিন্তু সেখান থেকে বেরিয়ে যাবে।

     সুতরাং আপনার ওয়েবসাইটটিকে অবশ্যই রেস্পন্সিভ হতে হবে অর্থাৎ আপনার ওয়েব পেজটি যেমন সুন্দর ভাবে কম্পিউটারে খুলতে সক্ষম আবার একইভাবে সুন্দর ডিজাইনের সঙ্গে যেন মোবাইল ফোনে খুলতে পারে। How to rank my website in Bengali.

নাম্বার সেভেন, স্পিড গুগোল পেজ স্পিড সাইট এ গিয়ে আপনি আপনার ওয়েবসাইটের পেজ স্পিড চেক করুন এবং যে সকল কারণে আপনার ওয়েবসাইটের স্পিড খুব খারাপ হচ্ছে সেগুলি আপনি খুঁজে বের করুন ও সেগুলি সমাধান করার চেষ্টা করুন।

     কেননা গুগোল যদি আপনার পেজ এর স্পিড বেশি থাকে তাহলে তা কখনোই তার সার্চ রেজাল্টে জায়গা দিতে চাইবে না।যেসকল ওয়েবসাইটগুলি লোড নিতে খুব কম সময় নয় সেগুলি গুগোল বেশি পরিমাণে গুরুত্ব দেয়। How to rank my website in Bengali.

    অনেকের মনেই প্রশ্ন জাগে যে ওয়েব সাইটের পেজ ইস্পিড কি সব সময় 60 পার্সেন্ট এর উপরে হতে হবে কিন্তু আমি ব্যক্তিগতভাবে বলবো দুই বা তিন সেকেন্ডের ভিতর যদি আপনার ওয়েবসাইটের আর্টিকেলগুলো খুলতে পারে তবে তা যথেষ্ট তা না হলে আপনি একটি ভাল ওয়েব ডেভেলপার এর সঙ্গে এই বিষয় নিয়ে যোগাযোগ করতে পারেন।


অন পেজ এসইও


    একটি ওয়েবসাইট এর ভিতরে বসে যে সকল কাজ করা হয় তাকে আমরা বলি অন পেজ এসইও এখন অন পেজ এসইও এর ভিতরে প্রথম যে কাজ করতে হবে সেটি হল ইউআরএল স্ট্রাকচার

     আপনার ইউআরএল অবশ্যই ইউনিক হতে হবে খুব বড় হতে হবে এমন নয় আর অবশ্যই আপনার ইউ আর এল যেন আপনার আর্টিকেলের কিওয়ার্ড দিয়ে তৈরি করা থাকে। How to rank my website in Bengali.

   নাম্বার টু টাইটেল বা মেটা টাইটেল, আপনার ওয়েবসাইটের আর্টিকেল এর টাইটেল অবশ্যই ইউনিক এবং রিলেভেন্ট হতে হবে আর এই সকল টাইটেলে অবশ্যই আপনার নির্বাচিত কিওয়ার্ড ব্যবহার করবেন আর আপনার ওয়েবসাইটের টাইটেল যেন কখনোই 70 টি বর্ণের বেশি না হয়।

    নাম্বার 3 ডেসক্রিপশন, মেটা ডেসক্রিপশন, ডিসক্রিপশন এ অবশ্যই আপনি আপনার নির্বাচিত কিওয়ার্ড গুলি সুন্দরভাবে ব্যবহার করবেন যেখানে দেশ ওয়ার্ডের একটি সংক্ষিপ্ত বিষয় রাখতে হবে আর আপনার বিষয় সম্পর্কিত শব্দটিকে এখানে রাখতে হবে।

নাম্বার ফোর স্কিমা ডাটা, স্কিমা ডাটা মার্ক আপ হলো যা সার্চ ইঞ্জিনকে খুব সহজ উপায়ে আপনার ওয়েবসাইটের ইনফরমেশন তথ্য প্রোভাইড করে থাকে এগুলি হল যেমন নেম কন্টাক্ট ডিটেইলস ইত্যাদি।যদি আপনার ওয়েবসাইটে স্কিমা ডাটা মার্কআপ কাজ না থাকে তবে আপনার ওয়েবসাইটের RANK কমে যেতে পারে ধীরে ধীরে।



  • এছাড়া একটি ওয়েবসাইটের গুগলে রেংক করার জন্য অন্যতম এবং গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল অফ পেজ এসইও। অফ পেজ এসইও সাধারণত ওয়েবসাইট বা আর্টিকেল এর মধ্যে হয় না এটি আর্টিকেল এর বাইরে গিয়ে প্রয়োগ করতে হয়।
  • সাধারণত অফ পেজ এসইও তে প্রধান যে বিষয়টি থাকে সেটি হল লিঙ্ক বিল্ডিং। How to rank my website in Bengali.
  • আপনার ওয়েবসাইটের অফ পেজ এসইও করার জন্য নির্দিষ্ট পরিমাণ এবং উপযুক্ত ভাবে লিঙ্কবিল্ডিং করতে হবে।
  • অফ পেজ এসইও এর জন্য লিঙ্কবিল্ডিং সাধারণত দুই প্রকার একটি হলো ইন্টারনাল লিংকিং, এবং অন্যটি হল আউট বাউন্ড লিংক।
  • আপনার প্রত্যেকটি বিষয় ক্যাটাগরি ইত্যাদির লিঙ্কগুলি অন্য সকল বিষয় আর্টিকেল এবং ক্যাটাগরিতে যুক্ত করুন এটি হলো ইন্টারলিংক।
  • আবার আপনার ওয়েব সাইটের লিংক বা আপনার কোন আর্টিকেল এর লিংক অন্য কোন ওয়েবসাইটে পেস্ট করার বিষয়টিকে বলা হলো ব্যাকলিংক। How to rank my website number one in Google in Bengali.
  • যদিও এটি একটি আউটবাউন্ড লিঙ্ক কিন্তু সেটি আপনার ওয়েবসাইটের জন্য যে ওয়েবসাইট থেকে আসবে তার থেকে সেটি হবে ব্যাকলিংক।
  • অফ পেজ এসইও এর জন্য ব্যাকলিংক অত্যন্ত জরুরী এবং গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়।
  • ব্যাকলিংক আবার দুই ধরনের একটি ডুফলো ব্যাকলিংক অন্যটি নোফলো ব্যাকলিংক|
  • ডুফলো ব্যাকলিংক গুলি আমাদের ওয়েবসাইট বা আর্টিকেল কে নির্দেশ করে কিন্তু নোফলো ব্যাকলিংক আমাদের ওয়েবসাইট বা আর্টিকেল কে নির্দেশ করে না।
  • তবে অফ পেজ এসইও এবংগুগোল সার্চ ইঞ্জিনে রং করানোর জন্য এই দুই প্রকার লিংক যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ।
  • ব্যাকলিংক উপযুক্ত ভাবে তৈরি করতে পারলে কোন ওয়েবসাইট বা কোন আর্টিকেল খুব ভালোভাবে তা রেঙ্ক করতে পারে।


আমার মতামত :   যদিও আমি SEARCH ENGINE OPTIMISATION/ সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন ও SILO STRUCTURE / সাইলো স্ট্রাকচার নিয়ে আলোচনা এর আগেই করেছি এর মাধ্যমে আপনি কোন ওয়েবসাইট বা আর্টিকেলকে খুব সহজে যেকোন সার্চ ইঞ্জিনের প্রথম পেজে লিংক করাতে পারবেন ।

    তবুও যে বিষয়গুলি আমাদের অত্যন্ত জরুরী সেই গুলির মধ্যে একটি উল্লেখযোগ্য বিষয় ছিল টেকনিক্যাল / TECHNICAL SEO, এসইও ও অন পেজ এসইও আজ আমি এই আর্টিকেলে সেই দুটি সম্পর্কে যথেষ্ট ভাবে আলোচনা করেছি। How to rank my website number one in Google in Bengali.

    অবশ্যই আপনি আপনার ওয়েবসাইটে এই প্রযুক্তিগুলি ব্যবহার করবেন যার ফলে আপনার ওয়েবসাইটটি এবং আর্টিকেল গুলি খুব সহজে সার্চইঞ্জিনে RANK করতে পারে।

    সার্চ ইঞ্জিন সম্পর্কিত আলোচনা টি যদি আপনাদের ভালো লাগে অবশ্যই নিচে কমেন্ট করে জানাবেন এবং প্রয়োজনীয় আরও কোন তথ্য জানতে হলে সেটি ও কমেন্ট করে জানাবেন ধন্যবাদ।