গুগল একাউন্ট কি ? কিভাবে গুগল একাউন্ট খুলব ? কিভাবে গুগল একাউন্ট ডিলিট করবো ?

কীভাবে একটি গুগল অ্যাকাউন্ট তৈরি করবেন -  আজ আমরা কীভাবে একটি গুগল অ্যাকাউন্ট তৈরি করব সে সম্পর্কে আলোচনা করবো। আপনি যদি গুগল অ্যাকাউন্ট কী এবং কীভাবে একটি গুগল অ্যাকাউন্ট তৈরি করবেন সেই বিষয় না জানেন তবে আপনাকে অবশ্যই এই আর্টিকেল টি পুরোপুরি পড়তে হবে। এই আর্টিকেল টি তে আমি আপনাকে গুগল অ্যাকাউন্ট / Google Account সম্পর্কে সমস্ত বিবরণ দেবো।
কিভাবে গুগল একাউন্ট খুলব?

    আমরা একটি গুগোল একাউন্ট কিভাবে বানাবো বা তৈরি করবো এ বিষয়টি জানার আগে আমাদের জানতে হবে যে গুগোল একাউন্ট কি ? কারণ আপনি যদি না জানেন যে গুগোল একাউন্ট কি তবে তার ব্যাবহার বা কি করে বানাতে হয় এই সকল বিষয় আপনার কাছে পরিষ্কার হবে না , সুতরাং চলুন দেখেনি গুগোল একাউন্ট কি ?


গুগোল একাউন্ট কি ?


    গুগোল একাউন্ট হলো এমন একটি আইডি বা ঠিকানা যাকে ব্যাবহার করে আমরা বিশ্বের সব থেকে বড় এই কোম্পানির সমস্ত সার্ভিস বা পরিষেবা কে ব্যাবহার করতে পারবো। একটি গুগোল একাউন্ট সাধারণত আমাদের কাছে জিমেইল নামে বেশি পরিচিত।

    আসলে আমরা যাকে জিমেইল বলে জানি তাই হলো একট
 গুগোল একাউন্ট। কারণ গুগোল এর নিজস্ব একটি সার্ভিস হলো ইমেইল এর পরিষেবা দেওয়া। এই কারণে গুগোল তাদের ইমেইল কে জিমেইল নাম দিয়েছে।

    তাহলে আমরা এতক্ষণ বুঝতে পারলাম যে একটি গুগোল একাউন্ট কি ! এবিষয়ে আর একটি কথা আমাদের জানতে হবে যে আপনি একটি  জিমেইল অ্যাকাউন্ট / গুগোল একাউন্ট ছাড়া কোনো ভাবেই গুগলের কোনো।পরিষেবা ব্যাবহার করতে পারবেন না। তবুও আরো অনেক কিছু জানার জন্য  চলুন এবার আমরা দেখেনি  একটি গুগল একাউন্ট কেনো দরকার ?




গুগল অ্যাকাউন্ট তৈরি করার দরকার কেন?


   বর্তমান যুগে ইন্টারনেট ক্রমবর্ধমান ব্যবহৃত হচ্ছে এবং নতুন নতুন জিনিস আবিষ্কারও ইন্টারনেট এর মাধ্যমে দ্রুত সম্ভব। ইন্টারনেট ব্যাবহার করার জন্য আমাদের প্রয়োজন একটি গুগল অ্যাকাউন্ট কারণ ইন্টারনেট ব্যাবহার করতে আমরা নির্ভর করি গুগল এর উপর।

ইন্টারনেট ব্যবহার করতে গেলে কোনো ব্যক্তির অবশ্যই একটি জিমেইল অ্যাকাউন্ট থাকতে হবে অর্থাৎ গুগল অ্যাকাউন্ট। গুগল অ্যাকাউন্ট তৈরির অর্থ আপনার একটি জিমেইল আইডি তৈরি করতে হবে। এই বিষয় দুটোই এক। গুগল অ্যাকাউন্ট তৈরির জন্য অনেকগুলি সুবিধা রয়েছে।

গুগলের একাউন্ট করার জন্য গুগলের বিভিন্ন বিষয় সম্পর্কে আপনার অবশ্যই জানতে হবে, গুগল আমাদের কোন কোন  পরিষেবা দিয়ে থাকে ? নীচে আমি আপনাকে কয়েকটি অ্যাপ্লিকেশন এবং গুগল দ্বারা আমাদের দেওয়া বিভিন্ন পরিষেবার নাম সম্পর্কে ধারণা দিচ্ছি ।


গুগলের বিভিন্ন পরিষেবা :

  • জিমেইল
  • গুগল অ্যাপ
  • প্লে স্টোর
  • ইউটিউব
  • গুগল ড্রাইভ
  • গুগল ম্যাপ
  • গুগল ডুও
  • গুগল মিউজিক
  • গুগল ইউটিউব মিউজিক
  • গুগল মুভিজ
  • গুগল পে
  • গুগোল ট্রান্সলেট
  • গুগোল ইমেজ
  • গুগোল ডকস


আপনার যদি অ্যান্ড্রয়েড স্মার্ট ফোন থাকে তবে এই সমস্ত অ্যাপ্লিকেশন গুলি খুব সহজেই আপনার মোবাইলে প্রথম থেকে  ইনস্টল হয়ে থাকবে, আপনাকে সেগুলি ডাউনলোড করতে হবে না, যদি কোনটি না থাকে তবে ডাউনলোড করতে পারেন।

   এই সমস্ত অ্যাপ্লিকেশন গুগল কোম্পানি থেকে ব্যবহারের জন্য দেওয়া হয়েছ এবং গুগল আমাদের বিনামূল্যে এই অ্যাপ্লিকেশনগুলি ব্যবহার করার অনুমতি দেয়। অ্যাপ্লিকেশনটি ব্যবহার করতে আমাদের কোনও অর্থের প্রয়োজন হয় না।

আপনার যদি এই সমস্ত অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করতে হয় তবে আপনার অবশ্যই একটি গুগল অ্যাকাউন্ট থাকা উচিত। অর্থাৎ আপনার অবশ্যই একটি ইমেল আইডি থাকা উচিত। আপনি ইমেল আইডি থেকে যে কাউকে ইমেল ও করতে পারেন।

    এর জন্য আপনার একটি জিমেইল অ্যাকাউন্ট থাকতে হবে। সুতরাং আজ আমরা কীভাবে একটি গুগল অ্যাকাউন্ট খুলতে পারবো বা তৈরি করতে হয় সে সম্পর্কে এখানে বিস্তারিত আলোচনা করবো।

একটি গুগল অ্যাকাউন্ট তৈরি করা খুব সহজ, আমি আপনাকে যে স্টেপ বলব সেগুলি আপনাকে অনুসরণ করতে হবে এবং তারপরে আপনি নিজের একটি গুগল অ্যাকাউন্ট তৈরি করবেন। 

    একটি গুগোল অ্যাকাউন্ট তৈরি করার অনেক রকম পদ্ধতি আছে, কখনো কখনো একটি গুগোল অ্যাকাউন্ট সরাসরি যেকোনো গুগোল এর অ্যাপ্লিকেশন এর মধ্যে গিয়ে তৈরি করা যায়। সুতরাং আপনি এই পদ্ধতি অবলম্বন করে যেকোনো মোবাইল ডেস্কটপ বা ল্যাপটপ থেকে একটি গুগোল অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে পারবেন।


কীভাবে মোবাইল থেকে গুগল অ্যাকাউন্ট তৈরি করবেন ?



   সাধারণভাবে এবং খুব সহজে একটি গুগোল অ্যাকাউন্ট খোলার নিয়ম সেটি আমি এখানে প্রতিটি ধাপে ধাপে বলছি - 

প্রথমত আপনি যে মোবাইল ফোনটি ব্যবহার করেন তার থেকে যেকোন একটি ব্রাউজার ওপেন করুন। এই ব্রাউজারটি হতে পারে গুগলের গুগল ক্রোম বা ফায়ারফক্স বা microsoft'এর edge ইত্যাদি যেকোনো ব্রাউজার হলেই তা থেকে আপনি একটি গুগোল অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে পারবেন।

    আপনার মোবাইল থেকে একটি ব্রাউজার ওপেন করার পর তার একদম উপর দিকে একটি এড্রেস বার থাকে যেখানে আমরা যখন কোন ওয়েবসাইটে প্রবেশ করি তার চেয়ে অ্যাড্রেস বা ওয়েবসাইট লিংক সেটি অটোমেটিকেলি লেখা থাকে। এই এড্রেস বারে আপনাকে লিখতে হবে - WWW.GOOGLE.COM । এবং এটি লেখার পর তাকে সার্চ অপশনে ক্লিক করতে হবে।
গুগল একাউন্ট খোলার নিয়ম


    সার্চ অপশনে ক্লিক হওয়ার পর অটোমেটিক্যালি আপনার সামনে একটি গুগোল এর সার্চ রেজাল্টের পেজ চলে আসবে। এবার এই পেজটিতে একটি সার্চ বার থাকবে ঠিক যেমন আগের পেজে উপরদিকে অ্যাড্রেস বার ছিল। এবার এই পেজটির মাঝ বরাবর একটি সার্চ বার থাকবে।
নতুন জিমেইল আইডি কিভাবে খুলবো ?

    দ্বিতীয়তঃ এই সার্চ বার টি তে আপনাকে লিখতে হবে,  CREATE A NEW GMAIL , এবং এটি লেখার পর ডানদিকে সার্চ অপশনে ক্লিক করতে হবে। ক্লিক করার পর আপনার সামনে অনেকগুলি সার্চ রেজাল্ট আসবে ঠিক নিচের ছবিটির মত এবং এখান থেকে আপনাকে বেছে নিতে হবে, https://accounts.google.com>sigNup  , এই অপশনটিকে। 
গুগল একাউন্ট কি ?


    এই অপশনটির উপর ক্লিক করার সঙ্গে সঙ্গে নিচের ছবির মত একটি নতুন উইন্ডো আপনার মোবাইলে খুলে আসবে, যেখানে একটি গুগোল অ্যাকাউন্ট খোলার জন্য সমস্ত রকম ব্যক্তিগত তথ্যগুলি এখানে লিখতে হবে। এমনকি আপনার জন্ম তারিখ ও সাল কি লিখতে হবে।

    এখানে প্রথম দিকে আপনার নাম ও টাইটেল লিখতে হবে ও দ্বিতীয় অপশনে আপনি যে নামে একটি গুগোল অ্যাকাউন্ট খুলতে চাইছেন সেই নামটি এখানে দিতে হবে লক্ষ্য রাখতে হবে আগে যদি এই একই নামে আপনার গুগোল অ্যাকাউন্ট থেকে থাকে তবে তা কিন্তু আর গ্রহণযোগ্য হবে না।
কিভাবে গুগল একাউন্ট খুলব ?


    সুতরাং একটি গুগোল অ্যাকাউন্ট এর জন্য যে নামটি আপনি নির্বাচন করেছেন সেটি আপনি নিতে পারবেন কিনা তা অটোমেটিক আপনার নিচে দেখে দেবে। আপনার ইউজারনেম নির্বাচন করার পর আপনার একটি সঠিক ও উন্নত মানের পাসওয়ার্ড নির্বাচন করতে হবে।

পাসওয়ার্ড কি ? 


    আমরা কমবেশি সবাই জানি যে পাসওয়ার্ড বিষয়টি কি কিন্তু যারা পাসওয়ার্ড বিষয়টি কি জানেন না তাদের জন্য একটু বোঝানোর চেষ্টা করি যে পাসওয়ার্ড কি ? ধরুন আপনার ঘরের বা বাড়ির জন্য একটি নির্দিষ্ট বন্ধ করার তালা আছে সেই তালা টি কে যদি আপনি ব্যবহার করতে চান তার জন্য নিশ্চয়ই একটি চাবি আছে অর্থাৎ যে চাবি ছাড়া সেই তারাটিকে আপনি আটকাতে বা খুলতে পারবেন না।

    একই রকমভাবে এই গুগল একাউন্ট হলো আপনার একটি বাড়ি বাঘর সুতরাং সেটি আপনার ব্যক্তিগত সম্পত্তি তাই তাকে আপনার ব্যক্তিগত ভাবে রাখার জন্য বা সংরক্ষণ করে রাখার জন্য একটি তালা প্রয়োজন। শুধু তালা হলেই তাকে আমরা সুরক্ষিত রাখতে পারিনা তার জন্য প্রয়োজন একটি চাবি চাবি হল আপনার গুগল একাউন্টের পাসওয়ার্ড।
কিভাবে জিমেইল একাউন্ট খুলব ?

   এবার আশাকরি বুঝতে পারলেন যে পাসওয়ার্ড বিষয়টি কতখানি গুরুত্বপূর্ণ। যদি আপনি গুগল একাউন্টের পাসওয়ার্ড ভুলে যান সে ক্ষেত্রে কিন্তু আপনার গুগল একাউন্টে আপনি আর ব্যবহার করতে পারবেন না ( যদিও পাসওয়ার্ড নতুন করে তৈরি করার পদ্ধতি আছে )।

   সুতরাং পাসওয়ার্ড হল এমন একটি সুরক্ষিত বা সংরক্ষিত জিনিস যা আমাদের গুগোল একাউন্ট কে ব্যবহার করতে কাজে লাগবে সুতরাং এক্ষেত্রেও আমাদের গুগোল একাউন্ট তৈরী করার জন্য একটি সুন্দর ও সুরক্ষিত পাসওয়ার্ড নির্বাচন করা প্রয়োজন।

    এবার যেহেতু আপনি পাসওয়ার্ড সম্পর্কে ধারনা পেয়েছেন তাই পাসওয়ার্ডটি সঠিকভাবে দেওয়ার পর নিচের লাইনটি তে আবার তাকে একইভাবে লিখুন অর্থাৎ আপনি কনফার্ম করে লিখুন যে আপনি কোন পাসওয়ার্ডটি নির্বাচন করেছেন।

   পাসওয়ার্ড সঠিকভাবে দেওয়ার পর ঠিক তার নিচের ঘরে দেখুন লেখা আছে যে আপনি কোন দেশে বসবাস করেন অর্থাৎ আপনি যে দেশে বসবাস করেন সে দেশটিকে একেই লিস্ট থেকে সিলেক্ট করুন। আপনার নির্বাচিত দেশটিকে সিলেক্ট করার পর নিচের ঘরে দেখুন লেখা আছে যে একটি ফোন নাম্বার দেওয়ার জন্য। 

   এই অ্যাকাউন্ট অর্থাৎ জিমেইল বা গুগল একাউন্টে যে আপনি তৈরি করেছেন এবং সেটি আপনার এটি যাচাই করার জন্য গুগল আমাদের একটি নির্দিষ্ট ফোন নাম্বার দিতে বলে। কারন গুগল সেই ফোন নাম্বারে একটি পাসওয়ার্ড সেন্ড করে যেটিকে আমাদের গুগোল একাউন্ট ভেরিফাই করার জন্য প্রয়োজন হয়।

    যদি গুগল একাউন্ট তৈরি করার জন্য এই পদ্ধতি গুগোল না রাখতো তাহলে অনেক একাউন্ট এই ভাবে তৈরি করে মানুষ অন্য কাউকে ঠকাতে পারতো বা কাউকে ব্ল্যাকমেইল করা খুব সহজ হয়ে যেত। এই কারণে যখন আপনি একটি গুগোল অ্যাকাউন্ট তৈরি করবেন এবং তা থেকে যদি কোন দুষ্কৃতী মূলক কাজ করেন তাহলে খুব সহজেই কিন্তু গুগল আপনাকে ধরে ফেলতে পারে।

   আপনি সঠিক ভাবে আপনার মোবাইল নাম্বারটি ইনপুট করার পর তার নিচের ঘরে দেখুন লেখা আছে ইনপুট ইউর e-mail অ্যাড্রেস অপশনাল। এর অর্থ হল যে এই ঘরে আপনি এমন একটি ইমেইল এড্রেস প্রদান করুন যেটি আপনার আগে থেকেই আছে।

   এখানে বলি এই ইমেইল এড্রেস টি দেওয়ার কারণ ও কাজ কি ? অপশনাল ইমেইল এড্রেস দেওয়ার প্রয়োজন হলো যদি কখনো আমি আমার এই গুগল একাউন্টের পাসওয়ার্ড ভুলে যাই তখন তার পাসওয়ার্ড কে নতুন করে তৈরি করতে এই অপশনালি মেইলটি আমাদের সাহায্য করে।
How to create a Google account ?

   বা ধরুন কখনো আমরা আমাদের গুগোল একাউন্ট টি আর খুঁজে পাচ্ছিনা বা হ্যাক হয়ে গেছে ঠিক তখন একটি ইমেইল গুগল থেকে আমাদের ওই অপশনাল ইমেইলে সেন্ড করে দেয়া হয় যে তোমার এই গুগল অ্যাকাউন্টের সঙ্গে একটি অন্যরকম অ্যাক্টিভিটি বা অন্য কেউ সাইন ইন করে ফেলেছে। সুতরাং আমার মতে অবশ্যই একটি অপশনাল ইমেইল এড্রেস দেওয়া উচিত।

   এই ফোনটিতে দেওয়া সমস্ত কিছু আপনার দ্বারা পূরণ করা হয়ে গেলে তার পরবর্তীতে নিচের ডান দিকে কন্টিনিউ / Continue অপশনে ক্লিক করুন। নেক্সট অপশনে ক্লিক করার পর সঙ্গে সঙ্গে তা অন্য একটি পেজে আমাদের নিয়ে যাবে ও যেখানে আমাদের বলবে যে আমি যে ফোন নাম্বারটি এখানে দিয়েছি তাকে ভেরিফাই বা যাচাই করার জন্য।

   গুগোল একাউন্ট তৈরি করার জন্য যে ফোন নম্বর আমাদের দিতে হয়,   তাকে দুই ভাবে ভেরিফাই বা যাচাই করতে পারি - একটি এসএমএস এর মাধ্যমে বা একটি ভয়েস কলের মাধ্যমে। যদি আপনি এখান থেকে একটি এসএমএস কে বেছে নেন তবে আপনার ওই মোবাইল নাম্বারে একটি এসএমএস / OTP আসবে যেখানে ছয় সংখ্যার একটি পাসওয়ার্ড দেওয়া থাকে।

    এরপর কন্টিনিউ করার সঙ্গে সঙ্গে আপনার কাছে গুগোল কোম্পানি থেকে তাদের বিভিন্ন প্রোগ্রাম ও পলিসি সম্পর্কে এগ্রিমেন্ট বা অনুমতি চাওয়া হবে। এর মানে হলো আপনি যদি তাদের পরিষেবা নিতে চান তবে তাদের কিছু নিয়ম নীতি আপনাকে মানতে হবে। এখানে এগ্রি / Agree করার পর আপনার এই একাউন্ট তৈরি হবে।
How to create a Gmail account on mobile ?


    ওই ছয় সংখ্যার পাসওয়ার্ডটি পরবর্তী পেজে দিলে তবেই আমাদের ফোন নাম্বার ভেরিফাই হয়ে গুগোল একাউন্ট টি তৈরি করা সম্পন্ন হবে। ও সঙ্গে সঙ্গে আপনাকে থ্যাংক ইউ দিয়ে একটি নতুন পেজ খুলে যাবে। 
Google account kaise kholen ?

   তাহলে আপনি কিন্তু একটি নতুন গুগোল একাউন্ট বা জিমেইল অ্যাকাউন্ট তৈরি করে ফেলেছেন এবং আপনার সেই গুগোল একাউন্ট বা জিমেইল একাউন্টে কি নামে হয়েছে তাকে আবার জানতে গেলে আপনার ব্রাউজারের একদম ডান দিকে উপরের কোনায় একটি গোল সার্কেলের মধ্যে যে নামে করেছেন তার প্রথম অক্ষরটি লেখা থাকবে সেখানে ক্লিক করলে আপনাকে দেখানো হবে যে আপনি কি নামে জিমেইল একাউন্ট গুগোল একাউন্ট তৈরি করেছেন।
How to delete Google account

   আশা করি কি করে একটি গুগোল অ্যাকাউন্ট বা জিমেইল অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে হয় তা আপনি শিখেছেন বা একটি নতুন গুগোল অ্যাকাউন্ট আপনি নিজেই তৈরি করে ফেলেছেন।

কিভাবে একটি জিমেইল অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে হয় ভিডিওতে শিখুন :





কিভাবে গুগল একাউন্ট ডিলিট করা যায় ?


    কিভাবে একটি গুগোল অ্যাকাউন্ট তৈরি করা যায় তা আমরা ইতিমধ্যে শিখেছি, কিন্তু কখনো কখনো বিনা প্রয়োজনে আমরা গুগল অ্যাকাউন্ট বা জিমেইল অ্যাকাউন্ট তৈরি করে ফেলি, যাকে আমাদের ডিলিট করার প্রয়োজন হয়ে পড়ে। কিন্তু সমস্যার বিষয় হল একটি গুগোল একাউন্ট কি করে তৈরি করতে হয় এটি যেমন আমরা জেনেছি ঠিক একই রকম ভাবে কিভাবে একটি গুগোল অ্যাকাউন্ট ডিলিট করতে হয় সেই বিষয়টিকেও আমাদের জানা প্রয়োজন।

    একটি গুগোল অ্যাকাউন্ট কে ডিলিট করা জন্য যে সমস্ত ধাপ বা পদ্ধতি গুলি আপনার জানা প্রয়োজন সেগুলো সম্পর্কে নিচে আমি আলোচনা করলাম - 

   আপনি যে গুগল অ্যাকাউন্ট ডিলিট করতে চাইছেন সেই অ্যাকাউন্ট টিকে যেকোনো মোবাইল বা কম্পিউটার ব্রাউজার এগিয়ে সাইন-ইন করুন। আপনার গুগোল অ্যাকাউন্ট সাইন ইন হওয়ার পর যে আইকনটির ডান দিকের কোনায় উপরে দেখতে পাবেন তারপরে ক্লিক করুন। ক্লিক করার সঙ্গে সঙ্গে এরকম নিচে ছবির মত একটি অপশন খুলে। এই অপশন থেকে MANAGE YOUR GOOGLE ACCOUNT / ম্যানেজ ইয়োর গুগল অ্যাকাউন্ট এর উপর. ক্লিক করুন।
গুগল একাউন্ট কিভাবে ডিলিট করব ?

   এখান থেকে একটি নতুন পেজ ওপেন হবে যা থেকে আপনি আপনার গুগোল অ্যাকাউন্ট সম্পর্কে যেকোনো বিষয় এডিট করতে পারেন। এখানে ওপেন হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে প্রথম যে অপশনটি আপনি দেখতে পাবেন তা হল হোম / HOME, এই অপশনটির পরে, আছে কন্টাক্ট ইনফর্মেশন এবং তিন নম্বরে আছে ডাটা এন্ড পার্সোনালাইজেশন / DATA AND PERSONALISE
মোবাইল থেকে কিভাবে গুগল একাউন্ট ডিলিট করবো


    আপনাকে আপনার গুগল একাউন্টে ডিলিট করতে হলে এই তিন নম্বরের ডাটা এন্ড পার্সোনালাইজড অপশনটিকে সিলেক্ট করতে হবে। 

   এই অপশনটি সিলেক্ট করার সঙ্গে সঙ্গে আপনার কাছে একটি নতুন পেজ খুলবে যেখানে লেখা থাকবে আপনার গুগোল অ্যাকাউন্ট এর বিভিন্ন ডেটা সম্পর্কে ও নিচের দিকে কল করলে দেখতে পাবেন লেখা আছে ডিলিট অ্যানি গুগোল সার্ভিস / DELETE ANY GOOGLE SERVICE ,
গুগোল অ্যাকাউন্ট পাসওয়ার্ড

    এই অপশনটি কে সিলেট করার পর আর একটি নতুন পেজ খুলবে যেখানে আপনাকে বলা হবে যে আপনি এই অপশনটিতে ক্লিক করে যেকোনো ধরনের গুগল সার্ভিস যেমন ইউটিউব জিমেইল গুগোল ড্রাইভ ইত্যাদি আরো অনেক পরিষেবা আছে যেগুলি একটি কে বা কয়েকটি কে নির্দিষ্ট ভাবে আপনি ডিলিট করতে পারেন।

    এবার এখানে যদি আপনি যেকোনো একটি পরিষেবা কে ডিলিট করতে চান তাহলে শুধুমাত্র সেই পরিষেবাটি কে সিলেক্ট করে নিয়ে ডিলিট করতে পারেন। আর যদি আপনি সমস্ত অ্যাকাউন্ট কে ডিলিট করতে চান তাহলে এখান থেকে Account Delete / এই অপশনটির উপর ক্লিক করতে হবে।
পাসওয়ার্ড কি ?


   অ্যাকাউন্ট ডিলিট এর উপর ক্লিক করার পর আপনার কাছে একটি মেসেজ দেয়া হবে যে আপনি কি এই অ্যাকাউন্টটি সত্যি ডিলিট করতে চান আর যদি ডিলিট করতে চান তাহলে আপনার কোনরকম ডাটা বা তথ্য কিন্তু আর আপনি ফিরে পাবেন না।
গুগল একাউন্ট ডিলিট


   এবং নিচে দুটি সিলেক্ট করা জায়গা থাকবে যে দুটিতে টিক দেওয়ার পর নিচের সাবমিট অপশনে ক্লিক করলে সঙ্গে সঙ্গে আপনার গুগোল অ্যাকাউন্ট ডিলিট হয়ে যাবে।
হাউ টু ডিলিট গুগল একাউন্ট

কি করে একটি গুগোল অ্যাকাউন্ট ডিলিট করতে হয় তার ভিডিও দেখুন : 
    



আমার মতামত :  কি করে একটি গুগোল অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে হয় তা আমরা ধাপে ধাপে শিখেছি ও প্রয়োজনে কি করে আমরা আমাদের গুগোল অ্যাকাউন্ট ডিলিট করব সেটি ওমরা শেষে ধাপে ধাপে শিখেছি সুতরাং এই আর্টিকেলটিতে আমরা গুগল অ্যাকাউন্ট জিমেইল অ্যাকাউন্ট সম্পর্কে একটি বিস্তারিত ধারণা পেয়েছি।

   শুধুমাত্র কি করে গুগোল অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে হয়কি করে গুগোল অ্যাকাউন্ট ডিলিট করতে হয় এই দুটি তথ্য কিন্তু আমরা পাইনি এখান থেকে আরো জেনেছি যে গুগোল একাউন্ট বা জিমেইল একাউন্ট আসলে কি এবং কি কি কাজে আমরা তাকে ব্যবহার করতে পারি।

    এগুলি ছাড়াও আজ এই আর্টিকেলটিতে আমরা আরো শিখেছি যে পাসওয়ার্ড কি বা পাসওয়ার্ড কে কেন আমাদের খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভাবে তৈরি করতে হয়।

    আশাকরি এই আর্টিকেলটি পড়ে আপনাদের উপকার হয়েছে যদি উপকার হয় তাহলে অবশ্যই বন্ধুদের সঙ্গে শেয়ার করে তাদেরকেও গুগল একাউন্ট সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্য জানতে সাহায্য করুন।

  এবং শেষে আমি অবশ্যই বলব কোন একটি গুগোল অ্যাকাউন্ট কে ডিলিট করতে গেলে আগে আপনি ভালোভাবে তাকে বিবেচনা করে নিয়ে ডিলিট করুন কারণ একবারে ডিলিট হয়ে যাওয়া কোন গুগোল একাউন্ট কে কিন্তু আর আমরা ফিরে পেতে পারি না সুতরাং সেখানকার তথ্যগুলি ডিলিট হয়ে গেলে তাকে কিন্তু আমরা আর ফিরে পাবো না। ধন্যবাদ :))